ঢাকা রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২৪ °সে


‘গরুর দুধে সোনা’, গো-মাতার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা বিজেপি নেতার

‘গরুর দুধে সোনা’, গো-মাতার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা বিজেপি নেতার
ছবি-সংগৃহীত

‘দেশি গরুর দুধে সোনা’ এই মন্তব্য ঘিরে সমালোচনা হওয়ায় ব্যথিত ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এনিয়ে নদিয়া জেলার মায়াপুরের মন্দিরে গোশালায় গিয়ে গো-সেবা করেছেন তিনি। সেইসঙ্গে ফেসবুক পোস্টে গোমাতার কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন বিজেপির এই নেতা।

গরুর প্রতি অগাধ শ্রদ্ধা থেকেই নাকি গোমাতার সম্মানে যুক্তি দিয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ। কিন্তু তা নিয়ে এত সমালোচনা। এতে নাকি গো-মাতাকেই অস্মান করা হচ্ছে বলে মনে করেন দিলীপ ঘোষ। দাপুটে বিজেপি রাজ্য সভাপতি তাই গোমাতার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। সমালোচকদের হয়ে ক্ষমা চাইতে ইসকন মন্দিরের গোশালায় হাজির হয়ে যান । বিশাল গোশালা ঘুরে আদর করে, গোমাতাদের খাওয়ান তিনি।

গোশালা দর্শনের সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেই পোস্ট করেছেন দিলীপ ঘোষ। সঙ্গে গোমাতার উদ্দেশে বার্তাও লিখেছেন তিনি।

বিজেপি রাজ্য সভাপতির বক্তব্য, যারা গোমাতার প্রশংসা সহ্য করতে পারেন না, তাদের যেন গোমাতা ক্ষমা করে দেন। সমালোচনা উড়িয়ে বলেছেন গোমাতার জয় হোক।

গত সপ্তাহে বিজেপির এই নেতা বর্ধমান শহরের টাউনহলে ‘ঘোষ এবং গাভীকল্যাণ সমিতি’র সভায় দাবি করেন, ‘গরুর দুধে সোনার ভাগ থাকে। তাই দুধের রং হলুদ হয়।’

সেদিন দিলীপ ঘোষ আরো বলেন,‘বিদেশ থেকে যে গরু আনা হয়, তা ‘হাম্বা’ আওয়াজ করে না। যে ‘হাম্বা’ ডাকে না, সে গরুই নয়। গোমাতা নয়, ওটা আন্টি। আন্টির পুজো করে দেশের কল্যাণ হবে না।’

বিজেপি নেতার এমন বক্তব্যে দেশটির সামাজিক মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। এছাড়া দেশটির বিজ্ঞানী-বিশেষজ্ঞদের একটা বড় অংশ দিলীপ ঘোষের এই বক্তব্য শুনে হতবাক। তাদের স্বীকারোক্তি, এমন ‘বৈজ্ঞানিক’ গবেষণা পৃথিবীর কোথাও হয়েছে বলে তাদের জানা নেই।

ইত্তেফাক/এসআর

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
০৮ ডিসেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন