ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬
৩২ °সে


৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ করলো চাচাতো ভাই

৫ম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ করলো চাচাতো ভাই
মুন্সীগঞ্জ। ছবি: গুগল ম্যাপ থেকে

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে ৫ম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা শ্রীনগর থানায় মামলা দায়ের করেছেন। উপজেলার বালাসুরের বউ বাজারে এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষক মো. ইমন ওই এলাকার সামাদ শেখের ছেলে।

ভুক্তভোগী ছাত্রীর বাবা বলেন, 'তিন মাস আগে একই এলাকার সামাদ শেখের ছেলে শ্রীনগর সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র মো. ইমন শেখ (২২) আমার ১১ বছরের মেয়েকে কৌশলে একাধিকবার ধর্ষণ করে। ঘটনার মাস খানেক পরে হঠাৎ মেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে তার মাকে সব খুলে বলে। স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নিয়ে মেয়ের প্রাথমিক পরীক্ষা করানোর পরে জানতে পারি সে প্রায় তিন মাসের গর্ভবতী।'

তিনি আরও বলেন, 'মান-সম্মানের ভয়ে প্রথমে ইমনের পরিবারকে বিষয়টি জানাই। এ ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য বালসুর বাজারের ব্যবসায়ী হাসু মোল্লা ও আলমগীর মোল্লা আমাদের সঠিক বিচারের আশ্বাস দেন। তারপর দশ হাজার টাকা দিয়ে মেয়ের গর্ভপাত করানোর জন্য পরামর্শ দেন। এরপরে ঢাকার একটি হাসপাতালে নিয়ে মেয়ের গর্ভপাত শেষে প্রায় ২০ দিন অতিবাহিত হয়। কিন্তু সমঝোতার ব্যাপারে হাসু মোল্লা ও আলমগীর মোল্লা কালক্ষেপণ করতে থাকে। পরে উপায় না দেখে স্থানীয় মেম্বার হারুন বেপারীকে ঘটনাটি জানাই।'

মেয়ের বাবা আরও বলেন, 'ধর্ষক ইমন আমার আপন চাচাত ভাইয়ের ছেলে। ইমনের বাবা সামাদ শেখ হাসু মোল্লার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার হওয়ায় এলাকায় প্রভাবশালী হাসু মোল্লার সহযোগিতায় ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছিলো। এ ঘটনায় আমি ধর্ষকের শাস্তি দাবি করি।'

ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী বলে, 'একই বাড়ির ইমনদের ঘরে মোবাইল চার্জের জন্য গেলে ফাঁকা বাড়িতে তিন মাস আগে ইমন আমাকে প্রথম ধর্ষণ করে। এ ঘটনার বিষয়ে মুখ খুললে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। তার ৬-৭ দিন পরে ইমন আমাকে তার রুমে নিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে আবার একই কাজ করে। অসুস্থ হয়ে পড়লে মায়ের কাছে এ ঘটনার বিষয়ে খুলে বলি। এ সময় ধর্ষক ইমনের বিচারের দাবি করছি।'

হাসু মোল্লা ও আলমগীর মোল্লা অভিযোগ অস্বীকার করে বলে, 'আমাদের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সত্য নয়।'

স্থানীয় ইউপি সদস্য হারুন বেপারী বলেন, 'ধর্ষণের স্বীকার ওই ছাত্রীর মা-বাবা আমাকে বিস্তারিত জানালে আমি তাদের এ ঘটনায় আইনী ব্যবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দিই।'

আরও পড়ুন: মনপুরায় ব্যাংক এজেন্টের খুনিদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন

শ্রীনগর থানার ওসি মো. ইউনুচ আলী বলেন, 'এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ভিক্টিমকে ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে। আসামি মো. ইমনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।'

ইত্তেফাক/এএন

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন