ঢাকা রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬
২০ °সে

জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে জেএসসি পরীক্ষার্থী, চিকিৎসার ব্যয়ে দিশেহারা পরিবার

জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে জেএসসি পরীক্ষার্থী, চিকিৎসার ব্যয়ে দিশেহারা পরিবার
হাসপাতালের বেডে শারমিন আক্তার। ছবি: ইত্তেফাক

জেএসসি পরীক্ষার্থী শারমিন আক্তার পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে যাওয়ার সময় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। আহত হয়ে জ্ঞান হারালে পাঁচ দিনেও তার জ্ঞান ফিরেনি। বর্তমানে সে রাজধানী ঢাকার একটি হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসকদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছে। চিকিৎসার ব্যয় বহন করার জন্য বৃত্তবানদের সাহায্য কামনা করছে তার পরিবার।

আহত জেএসসি পরীক্ষার্থী শারমিন আক্তার মুরাদনগর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের বঘুরামপুর গ্রামের মৃত ইবরাহিম ভুঁইয়ার মেয়ে। সে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার যাত্রাপুর এ.কে উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

জানা যায়, গত বুধবার সকালে জেএসসি পরীক্ষার (বিজ্ঞান) দেওয়ার জন্য শারমিন আক্তারসহ পাঁচজন সিএনজি অটোরিকশা যোগে কোম্পানীগঞ্জ কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য রওয়ানা হয়। বাখরনগর-কুলুবাড়ী গ্রামের সড়কের মধ্যবর্তী ইটভাটার নিকট পৌঁছামাত্র তাদের বহনকারী সিএনজির সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি অটোরিকশার সংঘর্ষ হয়। তখন সিএনজিতে থাকা পাঁচ পরীক্ষার্থী আহত হয়। তবে শারমিন আক্তারের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মেয়েটির সঙ্গে থাকা চাচাতো ভাই বাবুল মিয়া জানান, গত দু’বছর পূর্বে তার চাচা ইবরাহিম ভুঁইয়া পাঁচ ছেলে-মেয়ে রেখে মারা যায়। ওষুধপত্রসহ এখন শারমিন আক্তারের প্রতিদিন খরচ ১৪ থেকে ১৫ হাজার টাকা। যেখানে পরিবারে নুন আনতে পান্তা ফুরায়, সেখানে এত ব্যয় বহুল চিকিৎসা কিভাবে দেবে, এ চিন্তায় পরিবারের সদস্যরা দিন কাটাচ্ছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সফিকুল ইসলাম জানান, সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত শারমিন আক্তারের পরিবার খুবই অসহায়। তাদের পক্ষে আইসিইউতে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব নয়। আমরা তার পরিবারের অসহায়ত্বের কথা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানিয়েছি। তিনি জেলা প্রশাসকের সহযোগিতা চেয়েছেন। এছাড়াও তার চিকিৎসার ব্যয় ভার মিটানোর জন্য উপজেলা শিক্ষক সমিতিসহ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিকট যথাসম্ভব সাহায্য চাওয়া হয়েছে।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন