ঢাকা শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৭
১৫ °সে

সাতক্ষীরায় সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ, আটক ২

সাতক্ষীরায় সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ, আটক ২
সাংবাদিক পরিচয়দানকারী দুই চাঁদাবাজ। ছবি: ইত্তেফাক

সাতক্ষীরা শহরের এক বেকারিতে চাঁদাবাজি করার সময় সাংবাদিক পরিচয়দানকারী দুই চাঁদাবাজকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে শহরের ইটাগাছা এলাকার শাহিনুর বেকারি থেকে তাদের হাতেনাতে আটক করা হয়। এ সময় চাঁদাবাজ গ্রুপের হোতা আব্দুল হাকিম ও পলাশ নামের আরও ২ জন পালিয়ে যায়।

আটককৃতরা হলেন, শহরের মুন্সিপাড়া এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে মামুন হোসেন (৩০) ও সদর উপজেলা বাঁকাল এলাকার আব্দুল আজিজের ছেলে মাজহারুল ইসলাম (২৮)। মাজহারুল স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক সুপ্রভাত ও মামুন হোসেন দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকার সাংবাদিক বলে পরিচয় দেন।

বেকারি মালিক আব্দুল খালেক জানান, সাংবাদিক পরিচয়দানকারী হাকিমের নেতৃত্বে ৫/৭ জনের একটি গ্রুপ তার বেকারিতে চাঁদাবাজি করতে আসে। তারা বেকারিতে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরি হচ্ছে বলে হুমকি ধামকি দিতে থাকে এবং ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিলে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাকে জরিমানা করা হবে বলে হুমকি দেয়। তিনি বিষয়টি পুলিশ সুপারের কাছে মোবাইল ফোনে জানালে থানা পুলিশ ও ডিবি পুলিশের একটি টিম দুইজনকে আটক করেন। এ সময় বাকী দুইজন পালিয়ে যায়।

সাতক্ষীরা সদর থানার এসআই প্রদীপ কুমার জানান, চাঁদাবাজি করার সময় দুই জনকে আটক করা হয়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় চাঁদাবাজ গ্রুপের হোতা মুনজিতপুর গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের পুত্র আব্দুল হাকিম ও তার সহযোগী আশাশুনি উপজেলার শ্রীউলা গ্রামের আবুল কালাম সরদারের পুত্র জাহিদুর রহমান পলাশ।

আরও পড়ুনা: সিরাজগঞ্জে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

তিনি আরও জানান, আটক মাজহারুল ইসলাম নিজেকে স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক সুপ্রভাত ও মামুন হোসেন নিজকে দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকার সাংবাদিক বলে এ সময় পরিচয় দেন। সাংবাদিক পরিচয়দানকারী আটক দুই চাঁদাবাজসহ এর সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে বেকারি মালিক আব্দুল খালেক বাদী হয়ে সদর থানায় একটি মামলা দায়েরর প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

সাতক্ষীরা সদর থানার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে শহরের কয়েকজন ব্যবসায়ী নাম প্রকাশ না করার শর্তে অভিযোগ করে জানান, সাংবাদিক পরিচয়দানকারী এই চাঁদাবাজ গ্রুপটি জেলার বিভিন্ন স্থানে কখনও সাংবাদিক, কখনও ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয়ে দীর্ঘদিন খরে চাঁদাবাজি করে আসছেন।

ইত্তেফাক/এএএম

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৪ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন