ঢাকা বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬
২৮ °সে


জয়েই সমাধান দেখছেন মোসাদ্দেক

জয়েই সমাধান দেখছেন মোসাদ্দেক
ছবি : সংগৃহীত

চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে পছন্দের জায়গা, তিন নম্বরে ব্যাট করার সুযোগ পেয়েছিলেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। এই জায়গায় খেলে ঘরোয়া ক্রিকেটে অনেক রান করেছেন। কিন্তু সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি। শুধু তিনি নন, পুরো দল ব্যর্থ হয়েছে। বাংলাদেশ পেয়েছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট পরাজয়ের হতাশা।

এই হতাশা থেকে দলের যে বের হতে সময় লাগবে, এটা সকলেই বোঝেন। তবে মোসাদ্দেক বলছিলেন, টি-টোয়েন্টি সিরিজে একটা জয় পেলেই সময়টা তাদের পক্ষে চলে আসবে, ‘যদি আমরা চিন্তা করি যে কামব্যাক করা কঠিন হয়ে যাবে তাহলে জিনিসটি অন্যরকম হয়ে যায়। ফরম্যাটটি পুরোপুরি আলাদা। টেস্ট ক্রিকেট ছিল আর এখন টি-টোয়েন্টি। সবাই চিন্তা করছে টি-টোয়েন্টি নিয়ে। আর এগুলোর চেয়েও আমরা বেশি ফোকাস করছি একটি ম্যাচ জেতার দিকে। ইনশাল্লাহ একটি ম্যাচ জিতলে হয়তো মোমেন্টামটি আমাদের দিকে চলে আসবে আশা করি।’

দলের পাশাপাশি সৈকত নিজে যে পছন্দের পজিশনেও রান পেলেন না, সেটাও আলোচ্য ব্যাপার। তিনি নিজেই স্বীকার করছেন, সুযোগটা অপচয় হয়ে গেছে, ‘রান না করলে সুযোগটি তো অপচয় করার মতোই মনে হবে। অনেকের মনে হতে পারে যে মারতে গিয়ে আউট হয়েছি। প্রথম ইনিংসেও কিন্তু শুরু করেছি ছয় মেরে। দ্বিতীয় ইনিংসে ছয় হলে ব্যাপারটি অন্যরকম হতে পারত। হয়নি এখন সেটি আসলে হতাশাজনক।’

এখন সময় টি-টোয়েন্টিতে নজর ফেরানোর। সেখানেও চ্যালেঞ্জটা কঠিন। আফগানিস্তান টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে থাকা দল। এমন টেস্ট ফলের পর এই ব্যাপারটাও ভয়ের হওয়ার কথা। তবে মোসাদ্দেক বলছিলেন, তারা এ নিয়ে ভাবছেন না, ‘আসলে দেখুন আমরা যদি বেটার দল নিয়ে চিন্তা করতে থাকি তাহলে তো আমরা খেলতেই পারব না। আগে যখন ক্রিকেট খেলতাম তখন ইংল্যান্ড কিংবা অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে খেলতে গেলে আমাদের অনেক বেশি প্রশ্নবিদ্ধ হতে হতো যে আসলে কি করব কিংবা কি হবে না হবে। তবে এই দ্বিধাদ্বন্দ্বগুলো এখন আর নেই। সবাই জানে যে আমরা সবার সঙ্গে জিততে পারি। একটি ম্যাচ আমরা হেরেছি, হ্যাঁ অবশ্যই এটি হতাশার ছিল। আমি মনে করি যত তাড়াতাড়ি আমরা এটি ভুলতে পারব এবং একটি ম্যাচ জিতে ওভারকাম করতে পারব-সেটি আমাদের জন্য ভালো হবে।’

আফগানিস্তানের অধিনায়ক রশিদ খান এই ফরম্যাটেও হয়ে উঠতে পারেন বড়ো হুমকি। তবে মোসাদ্দেকের দাবি তারা এই সেরা স্পিনারের ভয় মাথাতে ঢোকাতে চাচ্ছেন না, ‘আসলে রশিদ খানকে নিয়ে আমরা ভয়ের কথা চিন্তা করি না। টেস্ট ক্রিকেট এবং টি-টোয়েন্টি পুরোটাই ভিন্ন ক্রিকেট। আমরা যখন টি-টোয়েন্টি খেলব তখন কোনো ডিফেন্স করার কিংবা অনেক কিছু চিন্তা করার সময় নেই। এখানে আসলে রান করতে হবে সেটাই মূল ব্যাপার।’

ইত্তেফাক/এএম

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন