ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৫ মাঘ ১৪২৭
২৪ °সে

নানা বর্ণে পর্দা উঠবে আজ

নানা বর্ণে পর্দা উঠবে আজ
এভাবেই আলোর উত্সবে মাতবে আজ মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়াম। গতকাল হয়ে গেল বঙ্গবন্ধু বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের রিহার্সেল —ইত্তেফাক

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ

দেবব্রত মুখোপাধ্যায়

গেট ঠেলে ঢুকতেই বোঝা গেল এ যেনো এক উত্সবের বাড়ি।

অ্যাকাডেমি মাঠে ঢোকার পথে চলছে রান্নার প্রস্তুতি। চুলায় ওঠার অপেক্ষায় আছে এক সারি পাতিল। পাশেই অ্যাকাডেমি মাঠে জোরেসোরে চলছে অনুশীলন। এখান থেকে দু-চার কদম হেঁটে মূল মাঠে ঢুকতেই বোঝা গেল, স্রেফ উত্সব নয়; এ এক মহোত্সবের অপেক্ষা।

বিশাল একটা মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে। ধাতব সেই মঞ্চের পেছনে সারি সারি তাঁবু। সামনে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কুকুর নিয়ে টহল দিচ্ছেন সশস্ত্র বাহিনীর পোশাক পরা সদস্যরা। ওদিকে গ্যালারি আর বিভিন্ন বক্সে চলছে শেষ সময়ের ঘষামাজা। সব মিলিয়ে এখন পর্দা ওঠার অপেক্ষা কেবল।

হ্যাঁ, আজ পর্দা উঠবে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল)। আগামী ১২ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে মাঠের খেলা। চলবে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত। তার আগে আজ সাড়ম্বরে আয়োজিত হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করবেন বিপিএলের উদ্বোধন। অনুষ্ঠানে দেশ-বিদেশের নামকরা কয়েকজন শিল্পী পারফরম করবেন।

শেষ সময়ের প্রস্তুতির কথা বলতে গিয়ে গতকাল বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন বলছিলেন, ‘আমাদের সব প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন। এখন সবকিছু আরেকবার দেখে নেওয়া হচ্ছে। আপনারা জানেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিজে উপস্থিত থেকে বিপিএল উদ্বোধন ঘোষণা করার জন্য সদয় সম্মতি দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতি মাথায় রেখে নিরাপত্তাব্যবস্থা থেকে শুরু করে সবকিছু খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

আজ বিকাল ৪টা ৩০ মিনিট থেকে শুরু হবে অনুষ্ঠান। এর আগে ২টা ৩০ মিনিট থেকে দর্শকের জন্য গেট খোলা হবে। আর ৫টা ৩০ মিনিটে গেট বন্ধ করে দেওয়া হবে। অনুষ্ঠানে পারফরম করবেন ভারতের চলচ্চিত্রশিল্পী সালমান খান ও ক্যাটরিনা কাইফ। এ ছাড়া ভারতের দুই সংগীতশিল্পী সোনু নিগম ও কৈলাশ খের থাকছেন অনুষ্ঠানে। বাংলাদেশের দুই খ্যাতনামা সংগীতশিল্পী মমতাজ ও জেমস থাকছেন এই আয়োজনে। সংগীতানুষ্ঠান ছাড়াও আতশবাজি খেলা ও লেজার শো থাকবে এই আয়োজনে।

সুজন জানালেন, গতকাল থেকেই ঢাকায় পৌঁছে যেতে শুরু করেছেন শিল্পীরা। গতকাল রাতে একটা মহড়াও হয়ে যাওয়ার কথা অনুষ্ঠানের।

এই অনুষ্ঠান খুব বেশি লোক মাঠে উপস্থিত থেকে দেখতে পাবেন না। বিশাল মঞ্চ তৈরি করায় গ্যালারির একটা অংশ পুরোটা আড়াল হয়ে গেছে। ফলে গ্যালারিতে দর্শক বসানো হচ্ছে না। দর্শক বসবেন মূলত মাঠে দুই স্তরে। ১০ হাজার ও ৫ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়েছে ‘অন গ্রাউন্ড’ নামের সেই টিকিট। এ ছাড়া ক্লাব হাউজ ও গ্র্যান্ড স্ট্যান্ডেও থাকবেন কিছু দর্শক। তাই বলে সারা দেশের মানুষ অনুষ্ঠান দেখা থেকে বঞ্চিত থাকবেন না।

কয়েকটি টেলিভিশন চ্যানেল সরাসরি সম্প্রচার করবে এই অনুষ্ঠান। এ ছাড়া প্রতিটি বিভাগীয় শহরে জায়ান্ট স্ক্রিনে সরাসরি দেখানো হবে অনুষ্ঠানটি। ঢাকা শহরের বাছাই করা বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় বসানো হচ্ছে জায়ান্ট স্ক্রিন।

সব মিলিয়ে প্রস্তুতির অভাব নেই। এখন কেবল বাদ্য বেজে ওঠার অপেক্ষা।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৮ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন