ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৫ মাঘ ১৪২৭
২৪ °সে

ঢাবির হলে বহিরাগতকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ

নেপথ্যে কর্মচারী নিয়োগ!
ঢাবির হলে বহিরাগতকে  কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের  দুই গ্রুপে সংঘর্ষ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হলে এক বহিরাগতকে কেন্দ্র করে হল ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় সুজন নামে এক বহিরাগত আহত হয়। এর রেশ ধরে বেশ কয়েকটি রুমে ভাঙচুরও চালানো হয়। গতকাল শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৫টা থেকে সাড়ে ৭টা পর্যন্ত এই সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। তবে অনুসন্ধানে জানা যায়, বহিরাগতকে ইস্যু করে হামলা হলেও হামলার নেপথ্যে ছিল হলের কর্মচারী নিয়োগের একটি বিজ্ঞপ্তি। কর্মচারী নিয়োগের বিষয়ে স্বচ্ছতা এবং অস্বচ্ছতাকে কেন্দ্র করে দ্বন্দ্ব চলছিল হলের ভিপি এম এম কামাল উদ্দিন ও জি এস জুলিয়াস সিজারের মধ্যে। পরে হল ছাত্রলীগের সভাপতি তাহসান আহমেদ রাসেলের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও হলের শিক্ষার্থীদের থেকে জানা যায়, হলের দ্বিতীয় তলার ১৫২ নম্বর রুমে সুজন নামে এক বহিরাগত বিগত কয়েক বছর ধরে অবস্থান করছে। হল সংসদের সমাজসেবা সম্পাদক মিলন খানের সহায়তায় সেখানে অবস্থান করে ঐ বহিরাগত। গতকাল বিকালে হল সংসদের সাধারণ সম্পাদক জুলিয়াস সিজার ও হল ছাত্রলীগের সহসভাপতি পিয়াসের নেতৃত্বে তাকে বের করে দেওয়া হয়। এসময় সুজনকে মারধরও করা হয়। ঘটনার পর সমাজসেবা সম্পাদক মিলন খানের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের খুলনা অঞ্চলের নেতাকর্মীরা হলের জুলিয়াস সিজার ও পিয়াসের নিয়ন্ত্রণে থাকা রুমগুলোতে ভাঙচুর চালায়। কর্মচারী নিয়োগ নিয়ে দ্বন্দ্বের বিষয়টি স্বীকার করেছেন হল সংসদের জিএস জুলিয়াস সিজার তালুকদার। তবে মারামারিতে এ দ্বন্দ্বের কোনো প্রভাব ছিল না বলে জানান তিনি।

অন্যদিকে ভিপি এম এম কামাল উদ্দিন কর্মচারী নিয়োগ নিয়ে দ্বন্দ্বের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। এদিকে হামলার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডির সদস্য ও প্রাধ্যক্ষ মাহবুবুল আলম জোরদার হলে অবস্থান করছিলেন বলেও জানা যায়। তাদের উপস্থিতি উপেক্ষা করে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৮ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন