ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৫ মাঘ ১৪২৭
২৪ °সে

খুলনা আওয়ামী লীগের সম্মেলন ঘিরে সাজসাজ রব

নেতৃত্ব নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে জোর জল্পনাকল্পনা
খুলনা আওয়ামী লীগের সম্মেলন  ঘিরে সাজসাজ রব

খুলনা মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে সাজসাজ রব পড়ে গেছে। আগামী ১০ ডিসেম্বর নগরীর সার্কিট হাউজ ময়দানে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। মহানগরীসহ জেলার সর্বত্র আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ছবিসংবলিত তোরণ, ব্যানার, ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে। শেষ মুহূর্তে মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে কারা আসছেন তা নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে চলছে জোর জল্পনাকল্পনা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে কোনো পরিবর্তন আসছে না। এ পদে বর্তমান সভাপতি সিটি মেয়র তালুকদার আবদুল খালেকই থাকছেন। তবে সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়ে খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভ্রাতুষ্পুত্র সেখ সালাউদ্দিন জুয়েল ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজানসহ বেশ কয়েকজনকে নিয়ে চলছে জল্পনাকল্পনা। শেষ পর্যন্ত কে হন এ নিয়ে জল্পনাকল্পনার পাশাপাশি নেতাকর্মীরা আছেন টেনশনে।

অপরদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ পেতে শুরু হয়েছে তীব্র প্রতিযোগিতা। সভাপতি পদে বর্তমান সভাপতি শেখ হারুনুর রশিদসহ সাবেক মন্ত্রী, ব্যবসায়ীসহ চার জনের নাম উঠে এসেছে। এছাড়া সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুজিত্ কুমার অধিকারীসহ অর্ধডজন প্রার্থী মাঠে নেমেছেন।

সূত্র জানায়, এই সম্মেলনে সভাপতি পদে প্রার্থী হতে চান বর্তমান সভাপতি খুলনা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ। এছাড়া এ পদে মাঠে নেমেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এম এম মুজিবুর রহমান, সাবেক মত্স্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মন্ত্রী নারায়ণচন্দ্র চন্দ, খুলনা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি ও মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি কাজী আমিনুল হক।

অপরদিকে সাধারণ সম্পাদক পদ পেতে আগ্রহী বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট সুজিত্ কুমার অধিকারী, যুগ্ম সম্পাদক ও তেরখাদা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান শরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সাবেক সহসম্পাদক অসিত বরণ বিশ্বাস, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান জামাল, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আখতারুজ্জামান বাবু এমপি, বটিয়াঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আশরাফুল আলম খান, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত এস এম মোস্তফা রশিদী সুজার ছোটো ভাই জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও সরকারি সুন্দরবন কলেজের সাবেক ভিপি এস এম মোর্ত্তজা রশিদী দারা এবং জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাংস্কৃতিক সংগঠক হুমায়ূন কবির ববি।

এদিকে খুলনা সার্কিট হাউজ ময়দানে মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের মঞ্চ তৈরির কাজ চলছে জোরেসোরে। গত ২৯ নভেম্বর থেকে দিন-রাত প্যান্ডেল নির্মাণের কাজ চলছে। স্বাধীনতা উত্তরকালে নৌকা আকৃতির বিশাল ও সুদৃশ্য পান্ডেল নির্মাণ করে সম্মেলন খুলনায় এই প্রথম অনুষ্ঠিত হচ্ছে। জাঁমজমকপূর্ণ বর্ণাঢ্য আয়োজনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সম্মেলনে অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ২৯ নভেম্বর খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে তালুকদার আব্দুল খালেক সভাপতি ও মিজানুর রহমান মিজান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এর প্রায় দুই বছর পর ২০১৬ সালের ৪ সেপ্টেম্বর মহানগর আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। অপরদিকে, ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে শেখ হারুনুর রশিদকে সভাপতি এবং এস এম মোস্তফা রশিদী সুজা সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এর নয় মাস পর পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়। গত বছর ১৮ জুলাই চিকিত্সাধীন অবস্থায় সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা রশিদী সুজা ইন্তেকাল করেন।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৮ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন