ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৫ মাঘ ১৪২৭
১৫ °সে

যে কারণে আপনার ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট দরকার

যে কারণে আপনার ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট দরকার

আপনার হয়তো কখনোই কোনো ওয়েবসাইট ছিল না বা কোনো ডোমেইন নেম কখনোই কিনে রাখেননি। হতে পারে আপনি একজন সাধারণ ব্যক্তি আর ওয়েবসাইট থাকা বা না থাকা নিয়ে ভাবছেন না। তবে ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট থাকার অনেক ফায়দা রয়েছে। যেগুলো হয়তো আপনাকে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা নিয়ে নতুন করে ভাবাতে পারে। আপনি যে পেশার ব্যক্তিই হোন, আজকের দিনে প্রত্যেকের ওয়েবসাইট থাকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

আপনার অনলাইন অস্তিত্ব

একটি ওয়েবসাইট আপনার অনলাইন অস্তিত্ব বজায় রাখবে। কোন ব্যক্তি যদি আপনার নাম লিখে গুগল সার্চ করে, আর আপনার ওয়েবসাইটের ডোমেইন নেম যদি আপনার সম্পূর্ণ নামে হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে প্রথম রেজাল্টে আপনার সাইটকেই খুঁজে পাবে। এখন আপনার সাইটে আপনি অনলাইন রেজ্যুমে সেটআপ করে রাখতে পারেন, আপনি ‘About Me’ পেজ তৈরি করতে পারেন যেখানে সহজেই আপনার সম্পর্কে কেউ জানতে পারবে।

অনেকেই বলবেন, অনলাইন সার্চ করলে তো আমার নিজের ফেসবুক আইডিও আসবে বা লিঙ্কডইন পেজও খুঁজে পাওয়া যাবে, তাহলে আবার নিজের ওয়েবসাইট কেন? ওয়েবসাইট হচ্ছে এমন জিনিস যেটাকে আপনি সম্পূর্ণ নিজের বলতে পারবেন। আপনার নামে ফেসবুকে হাজারও প্রোফাইল রয়েছে, লিঙ্কডইনে লাখো আইডি থাকতে পারে একই নামে, কিন্তু আপনার ওয়েবসাইট সম্পূর্ণ ইউনিক হবে, সেখানে যতভাবে নিজের অস্তিত্ব তৈরি করতে পারবেন, তৃতীয়পক্ষ ওয়েবসাইট থেকে সেটা সম্ভব হবে না।

ফটো পোর্টফোলিও

বর্তমানে অনলাইনে ফটো আপলোড করা বলতে সবাই ফেসবুক বা ইন্সটাগ্রামই বোঝে। কিন্তু আপনি নিজের ওয়েবসাইটেও ফটো আপলোড করতে পারেন এবং সেটাকে ফটো পোর্টফোলিও হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে এমন ওয়েবসাইট মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে তৈরি করা সম্ভব, চিন্তা করে দেখুন আপনার নিজের ওয়েবসাইটটি আপনার পার্সোনাল ব্র্যান্ড হিসেবে গড়ে উঠবে।

বেশিরভাগ হোস্টিং প্রভাইডার স্বয়ংক্রিয় ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করার সুবিধা প্রদান করে। তারপরে রেডিমেড ফ্রি টেম্পলেট ব্যবহার করে আপনার কল্পনার চাইতেও দ্রুত ওয়েবসাইট লাইভ হয়ে যাবে। আপনি যদি নিয়মিত ফটো আপলোড করেন সেক্ষেত্রে ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করায় বেশি উপযুক্ত হবে। তবে সাধারণ এইচটিএমএল টেম্পলেট ব্যবহার করেও এই কাজ করতে পারেন।

নিজের ফাইলগুলো হোস্ট করা

নিজের একটি ওয়েবসাইট থাকার পেছনে সবচাইতে বড়ো কারণ হতে পারে নিজের ফাইলগুলো হোস্ট করে রাখার জন্য। ফাইল হোস্ট করার জন্য আলাদা অনেক অপশন রয়েছে। যেমন:আপনি গুগল ড্রাইভ ব্যবহার করতে পারেন বা ড্রপবক্সে যেকোনো ফাইল হোস্ট ও শেয়ার করতে পারেন। কিন্তু এমন হতে পারে আপনি কোনো ফাইল বারবার এক্সেস করার দরকার পড়ে, আপনি বাইরে থাকলে আর সর্বদা গুগল ড্রাইভ বা ড্রপবক্স লগইন করা সম্ভব হয় না, সেক্ষেত্রে নিজের সাইট থেকে যেকোনো সময় দ্রুত আপনার ফাইল এক্সেস করতে পারবেন। আর তাছাড়া পাবলিক কম্পিউটার থেকে বা বন্ধুর কম্পিউটার থেকে আপনার গুগল অ্যাকাউন্ট লগইন না করাই ভালো। কিন্তু জাস্ট ব্রাউজার থেকে নিজের সাইট এক্সেস করে সহজেই ফাইলগুলো এক্সেস করে নিতে পারেন। তবে কোনো ফাইল যদি প্রাইভেট হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে নিজের ওয়েবসাইটে সেটা আপলোড করে রাখা খারাপ আইডিয়া হবে। আপনার সাইটের ইউআরএল সকলের কাছে পাবলিক থাকবে তাই গুরুত্বপূর্ণ কিছু এভাবে আপলোড করে রাখা উচিত হবে না। কিন্তু কোনো ফাইল যদি পাবলিকভাবে রাখলে সমস্যা না হয় সেক্ষেত্রে নিজের ওয়েবসাইটে এই কাজ সহজেই করা যেতে পারে। সকল হোস্টিং প্রভাইডারই ফাইল ম্যানেজার অপশন প্রদান করে থাকে যেখানে আপনি ফাইল আপলোড ও ম্যানেজ করতে পারবেন। যেকোনো ফাইল আপলোড করার পরে যে কাউকে লিঙ্ক সেন্ড করতে পারবেন। আর এই লিঙ্ক সহজেই মনে রাখা সম্ভব হয়, কেননা এটা ছোটো ও মনে রাখার মতো হয়।

প্রাইভেট ইমেইল

নিজের ডোমেইন ও হোস্টিং থাকার আরেকটি ফায়দা হচ্ছে আপনি এতে প্রাইভেট মেইল সেটআপ করতে পারবেন। এক্সেলনোড তাদের শেয়ারড হোস্টিং প্ল্যানের সঙ্গেও ফ্রি ওয়েব মেইল সার্ভার অফার করে, মানে আপনি সহজেই নিজের মেইল সেটআপ করে নিতে পারবেন। অনেকেই বলবেন, জিমেইল বা ইয়াহু মেইল বা হট মেইল থাকতে কেউ নিজের মেইল কেন নিজে হ্যান্ডেল করবে। এর অনেক কারণ থাকতে পারে। প্রথমত এটা দেখতে অনেক কুল, সকলের মেইলের শেষে@ gmail.com বা @yahoo.com থাকে, কিন্তু আপনার মেইলে @yourdomain.com থাকবে। যেমন আমার মেইল hello@tahmidborhan.com এটা দেখতে অনেক কুল না।

আরেকটি বড়ো কারণ হচ্ছে আপনার মেইলের ওপরে আপনার সম্পূর্ণ কন্ট্রোল থাকবে, কেননা ডোমেইনটি আপনার নিজস্ব। গুগল কোনো কারণে আপনার অ্যাকাউন্ট ব্যান করলে আপনার জিমেইল এক্সেসও হারিয়ে যাবে, কিন্তু আপনার নিজস্ব মেইল কেউ হারিয়ে দিতে পারবে না। আপনি চাইলে জিসুইট অ্যাকাউন্ট তৈরি করে জিমেইলের মতো ইন্টারফেসে নিজের প্রাইভেট মেইল ব্যবহার করতে পারবেন।

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৮ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন