ঢাকা বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬
২১ °সে


ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক

কুমিল্লায় বিপজ্জনক ইউটার্ন বাড়ছে দুর্ঘটনা

কুমিল্লায় বিপজ্জনক ইউটার্ন  বাড়ছে দুর্ঘটনা
কুমিল্লা : ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জেলার দক্ষিণ উপজেলার পদুয়ার বাজার এলাকায় ইউটার্ন —ইত্তেফাক

ঢাকা-চট্টগ্রাম ফোর লেন মহাসড়কে জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার পদুয়ার বাজার বাইপাসের ইউটার্ন দিন দিন বিপজ্জনক হয়ে উঠছে। অত্যন্ত ব্যস্ততম এই মহাসড়ক দিয়ে কয়েক মিনিটে শত গাড়ি চলাচল করে। কিন্তু সেখানে ইউলুপ না থাকায় বাড়ছে দুর্ঘটনা। এই পয়েন্টে কিছুদিন আগে এক সপ্তাহের মধ্যে পাঁচ জনের মৃত্যু ও বেশ কয়েকজন গুরুতর আহতের ঘটনা ঘটেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ইউটার্নের দুই পাশে (উত্তর ও দক্ষিণে) দুটি লিংক রোড রয়েছে। লিংক রোডের পরিবহনগুলোও ইউটার্ন ব্যবহারের মাধ্যমে চলাচল করে। এছাড়া এই মহাসড়ক দিয়ে প্রতি মিনিটে শত গাড়ি চলাচল করে। সেই গাড়িগুলোর গ্যাপে নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর ও চাঁদপুর রুটের পরিবহনগুলো বাম লেন থেকে ডান লেনে প্রবেশ করে। স্থানীয় বাসিন্দা ও সেবা মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক মুক্তিযোদ্ধা সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘মহাসড়কের এই ইউটার্ন এলাকাটি অত্যন্ত দুর্ঘটনাপ্রবণ। এখানে গত ২২ সেপ্টেম্বর মাইক্রোবাস ও পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মাইক্রোবাস আরোহী সদর দক্ষিণ উপজেলার হিরাপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর হোসেন ও তার স্ত্রী শিল্পী আক্তার নিহত হন এবং আহত হন অন্তত সাত জন। এর আগে ১৫ সেপ্টেম্বর একই স্থানে উলটো পথে আসা শ্যামলী পরিবহনের একটি বাসের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী তিন জন ছাত্রলীগ কর্মী নিহত হয়েছেন। ’

কুমিল্লা বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের নেতা মো. ফারুক হোসেন সুমন বলেন, ‘মহাসড়কের অধিকাংশ গাড়ির চালক ইউটার্নে এসেও গতি কমান না। ইউটার্নের একটু পশ্চিমে রেলওয়ে ওভারপাস রয়েছে। সেটিকে পরিকল্পিতভাবে মহাসড়ক ফেনীর মতো বড়ো করলে দুর্ঘটনার ঝুঁকি দূর হতো।’

স্থানীয় ব্যবসায়ী আজমল হোসেন এবং একাধিক গাড়ির চালক-যাত্রী ও পথচারীসহ অন্তত ১৬ জনের সঙ্গে কথা হলে তারা বলেন, ‘ঢাকা-চট্টগ্রাম এবং কুমিল্লা-নোয়াখালী-চাঁদপুর সড়কের চারমুখী মিলনস্থল পদুয়ার বাজারে ফ্লাইওভার কিংবা ইউলুপ নির্মাণ না হওয়ায় দুর্ঘটনা আর যানজটে ভোগান্তি বাড়ছে। এতে মহাসড়কের দুই পাশের ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।’

কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সদর দক্ষিণ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাবলু বলেন,‘এই মহাসড়কে গাড়ির চাপ অনেক বেশি। মিনিটে অসংখ্য গাড়ি চলাচল করে। অনেক চালক আছেন যারা বেপরোয়া গাড়ি চালান। ফলে ইউটার্নটি ভয়ংকর হয়ে উঠছে এবং দুর্ঘটনা ঘটছে।’ হাইওয়ে কুমিল্লা অঞ্চলের পুলিশ সুপার মো. নজরুল ইসলাম বলেন,‘পদুয়ার বাজার ইউটার্নে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে সড়ক ও জনপথ বিভাগ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পারে।’

সড়ক ও জনপথ (সওজ) কুমিল্লার নির্বাহী প্রকৌশলী ড. মোহাম্মদ আহাদউল্লাহ বলেন,‘দুর্ঘটনা রোধে ইউটার্নের পাশে দৃষ্টিনন্দন করে একটি ইউলুপ স্থাপনের কার্যক্রম চলছে। সহসাই সেখানে ইউলুপ নির্মাণ করে দেওয়া হবে, তখন আর দুর্ঘটনার ঝুঁকি থাকবে না। এছাড়া সেখানে গাড়ির চালক ও পথচারীসহ সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করে সচেতনতামূলক সাইনবোর্ড স্থাপন করা হবে।’

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৩ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন