ঢাকা রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬
২৭ °সে


আবরার হত্যা: ছাত্রলীগের কাণ্ডে ছাত্রদলের নিন্দা

আবরার হত্যা: ছাত্রলীগের কাণ্ডে ছাত্রদলের নিন্দা
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল ও আবরার ফাহাদ। ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে ছাত্রলীগের সংশ্লিষ্টতার নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। সোমবার সংগঠনের কেন্দ্রীয় সংসদের ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক মো. আবদুস সাত্তার পাটোয়ারীর স্বাক্ষরকৃত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। একই সঙ্গে এই হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে দুই দিনের কর্মসূচিও ঘোষণা করা হয়।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, 'দেশ বিরোধী চুক্তির প্রতিবাদ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেওয়ায় বুয়েট ছাত্র আবরারকে ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীরা পিটিয়ে নির্মম ভাবে হত্যা করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল। এবং একই সাথে দুই দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন।

আজ এক বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, সারাদেশে এখন আইনের শাসনের পরিবর্তে আওয়ামী শাসন চলছে। মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা এবং সুস্থ স্বাভাবিক জীবনের নিশ্চয়তা এই দেশে এখন সুদূর অতীতের গল্প। ছাত্রলীগ কর্তৃক আবরার হত্যাকাণ্ড একটি উদাহরণ মাত্র।সারাদেশে বিরোধী দল ও মতের মানুষের উপর আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসী সংগঠন ছাত্রলীগের অন্যায়, অত্যাচার যে কোন সময়ের তুলনায় এবার সীমা ছাড়িয়ে গেছে।

নেতৃদ্বয় বলেন, ছাত্রলীগ এখন গণতন্ত্রহীন এই দেশে রক্ষীবাহিনীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে। তারা পাক বাহিনীর কায়দায় নিজ দেশের মানুষের উপর নির্মম অত্যাচারের খেলায় মেতে উঠেছে। কিন্তু তারা ভুলে গেছে পাকিস্তানিরা অত্যাচার, নির্যাতন করে এই দেশকে তাদের দখলে রাখতে পারেনি, তেমনি আওয়ামী লীগও ছাত্রলীগ গুণ্ডাদের দিয়ে অন্যায়-অত্যাচার চালিয়ে কোনভাবেই দেশকে বেশিদিন নিজেদের কব্জায় রাখতে পারবে না।

নেতৃদ্বয় আরও বলেন, গত ১০ বছরে এই দেশে এত হত্যা, গুম আর খুন হয়েছে যে, আমরা এর বিচার চাইতে চাইতে ক্লান্ত। তাই নেতৃদ্বয় সকলকে আহ্বান জানিয়েছেন সময় থাকতে এই জুলুমবাজ সরকারের প্রতি প্রতিরোধ গড়ে তোলার। না হলে আজ হয়তো আপনি নয় অন্য কেউ হত্যাকাণ্ডের স্বীকার হচ্ছেন। কিন্তু কালই হয়তো চলে আসবে আপনার পালা।

আরও পড়ুন: আবরার হত্যা: ছাত্রলীগ থেকে ১১ জন বহিষ্কার

ওই বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আবরারের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এই দুই ছাত্রদল নেতা। একই সঙ্গে তারা শোক বিহ্বল পরিবারবর্গ ও আত্মীয়-স্বজনদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান এবং আবরারের হত্যাকারীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানান।

আবরার হত্যার প্রতিবাদে দেশব্যাপী ২ দিনের কর্মসূচীও ঘোষণা করে ছাত্রদল। আগামী ৯ অক্টোবর (বুধবার) দেশব্যাপী সকল জেলা, মহানগর ও বিশ্ববিদ্যালয় সমূহে এবং আগামী ১০ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) দেশব্যাপী সকল থানা, পৌর ও কলেজ সমূহে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। উল্লেখ্য, রবিবার রাতে বুয়েটের আবাসিক হলে বেদম প্রহারে আবরার ফাহাদের মৃত্যু হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরে বাংলা হলের নিচতলা ও দোতলার সিঁড়ির করিডোর থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত আবরার বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি শেরে বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন।

এ ঘটনায় সোমবার রাতে আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে এ ১৯ জনকে আসামি করে রাজধানীর চকবাজার থানায় একটি মামলা করেন। হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে বুয়েটের কয়েকজন ছাত্রকে পুলিশ আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন ডিএমপি’র অতিরিক্ত কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়। ওসি জানান, আটককৃতদেরও এ মামলায় আসামি করা হয়েছে।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২০ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন