ঢাকা শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২৫ °সে


মধ্যরাতে পূর্ণশক্তিতে আঘাত হানবে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল

মধ্যরাতে পূর্ণশক্তিতে আঘাত হানবে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল
ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাব কুয়াকাটায়। ছবি: ফোকাস বাংলা

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল পুরোপুরিভাবে শনিবার মধ্যরাত নাগাদ আঘাত হানতে পারে বলে জানানো হয়েছে। যখন বাংলাদেশে এটি ঢুকবে, তখন এর কেন্দ্রে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ১২০ থেকে ১৪০ কিলোমিটার হতে পারে বলে পূর্ভাবাসে বলা হয়েছে। এর আগে পূর্ভাবাসে বলা হয়েছিল, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের শনিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ উপকূলে আঘাত হানার কথা ছিল।

জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ আয়েশা খানম বলেন, এখন আবহাওয়া উপাত্তসমূহ ক্যালকুলেশন করে বলছি, ঘূর্ণিঝড়টি মধ্যরাত নাগাদ ভারতের পশ্চিমবঙ্গ বা খুলনা উপকূল অতিক্রম করবে সুন্দরবনের নিকট দিয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন, ঘূর্ণিঝড়টি যে বডি মুভ করছে, সেটার গতিবেগ ১৫ থেকে ২০ কিলোমিটারের মতো। যখন এটি বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় আঘাত হানবে, তখন দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার বেগ হবে ১০০ কিলোমিটার থেকে ১২০ কিলোমিটার হতে পারে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে কারণে স্বাভাবিকের চেয়ে ৫ থেকে ৭ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাস হতে পারে। এ জন্য সমুদ্রবন্দরগুলোতে মহাবিপদ সঙ্কেত জারি করা হয়েছে।

মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরকে ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে। কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

এদিকে সুন্দরবনের দুবলার চর এলাকায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের অগ্রবর্তী অংশ আঘাত হানতে শুরু করেছে। দুবলার মাঝেরচর থেকে জেলেরা মোবাইল ফোনে জানিয়েছেন, শনিবার দুপুর ১২টার দিকে ৬০ থেকে ৭০ কিলোমিটার বেগে ১০/১৫মিনিটব্যাপী ঝড়ো বাতাস বয়ে গেছে।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৫ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন