সিনেমাগুলো ‘অনিশ্চিত’

প্রকাশ : ০৩ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৩৫ | অনলাইন সংস্করণ

  নুরুল করিম

ছবি: সংগৃহীত।

দর্শককে দেখানোর জন্যই সিনেমা নির্মাণ করেন পরিচালকরা। প্রযোজকও চান না নিজের ইনভেস্ট করা টাকা আটকে রাখতে। তারপরও বিভিন্ন কারণে নানা সময়ে আটকে গেছে অসংখ্য সিনেমা। এসব সিনেমার অনেকগুলোতে নামীদামি তারকারাও অভিনয় করেছেন। যখন সিনেমার শুটিং শুরু হয় তখন থেকে দর্শকরা অপেক্ষায় থাকেন কখন সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে আসবে। কিন্তু কিছু কিছু সিনেমার জন্য অপেক্ষার মাত্রা এতটাই ছাড়িয়ে গিয়েছে যে, নাম বললেই প্রশ্ন ওঠে—এটা কী নতুন কোনো সিনেমা?

প্রথমেই বলা যায়, তানিম রহমান অংশুর ‘আদি’ সিনেমাটির কথা। ইউটিউবে চলচ্চিত্রটির টিজারও প্রকাশিত হয়েছিল। ২০১৬ সালে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও এখনো আলোর মুখ দেখেনি আদি। ছবিটির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন এবিএম সুমন, তার বিপরীতে সায়না। তাসকিন রহমান ও শতাব্দি ওয়াদুদও রয়েছেন এই সিনেমায়। কবে মুক্তি পাচ্ছে? জবাবে পরিচালক বলেন, ‘নিশ্চিত নই। বেশকিছু সমস্যার কারণে আটকে আছে আদি।’

২০১৬ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর শুটিং শুরু হয় ‘অপারেশন অগ্নিপথ’ সিনেমার। সিনেমার শুটিং প্রায় ৪০ শতাংশ শেষ। সিনেমার বাকি অংশ এখনো শুরুর নামই নেই। নির্মাতা আশিকুর রহমান এখন অস্ট্রেলিয়ায় অবস্থান করছেন। এ বিষয়ে তিনি জানালেন, সিনেমাটির সিডিউল জটিলতা এখনো কাটেনি। কবে নাগাদ দ্বিতীয় লটের কাজ শুরু হবে সে বিষয়েও জানেন না তিনি। এ ছবির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাকিব খান, মিশা সওদাগর ও শিবা আলী।

আরো পড়ুন: তিন মাসে সাড়ে ৪ বিলিয়ন ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে

নির্মাতা অনিমেষ আইচের সিনেমা ‘না মানুষ’-এর কথা মানুষ ভুলেই গেছে! পরিচালকও মনে রাখতে চান না সিনেমাটির কথা! সিনেমাটির পরিচালক বলেন, ‘২০১১ সালের একদম শেষদিকে সিনেমাটির কাজ শুরু করি। প্রায় ৬৫ ভাগ শুটিং শেষ করেছিলাম। কিন্তু এরপর হুট করেই বন্ধ হয়ে গেল শুটিং। বাকি কাজ আদৌ হবে কি-না তা জানা নেই।’

‘পারলে ঠেকা’ সিনেমার পিঠ যেন দেয়ালেই ঠেকেছে। সিনেমাটি মুক্তি পাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন পরিচালক সামুরাই মারুফ। অথচ ২০১২ সালে সিনেমাটির প্রথম লটের কাজ শেষ হয়। একই বছর ‘জঙ্গলের ডাক’ নামের একটি গানও অনলাইনে মুক্তি পেয়েছিল। সেখানে অভিনেত্রী জয়া আহসানকে একেবারেই ভিন্ন লুকে দেখেছিলেন দর্শকরা। ২০১৫ সালে শুটিং ফ্লোরে গড়ানোর কথা থাকলেও তা আর সম্ভব হয়নি। এ সিনেমায় জয়া আহসান, সুষমা সরকার, টাইগার রবিসহ অনেকেই অভিনয় করেছেন।

‘নৃ’ চলচ্চিত্রটি হয়তো এতদিনে আলোর মুখ দেখতো। কিন্তু পরিচালক রাসেল আহমেদের অকাল প্রয়াণে ছবির শুটিং বন্ধ হয়ে যায়। এটিই ছিল নির্মাতার প্রথম সিনেমা। এছাড়া নির্মাতা মোস্তফা কামাল রাজের ‘ছায়াছবি’ সিনেমাটি নিয়েও কোনো শোরগোল নেই। অথচ পূর্ণিমা ও আরিফিন শুভ অভিনীত এই সিনেমার শুটিং ৭ বছর আগেই শুরু হয়েছিল। এছাড়াও আটকে গেছে মুক্তযুদ্ধভিত্তিক ‘রান’ সিনেমাটিও। ২০১২ সালে সিনেমাটির কাজ শুরু করেন অভিনেত্রী আফসানা মিমি। তবে বিশাল বাজেটের এই সিনেমাটি কখনো আলোর মুখ দেখবে কি-না তারও নিশ্চয়তা নেই।

ইত্তেফাক/বিএএফ