ঢাকা বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬
১৯ °সে

‌‘ঝরে পরার হার ৪৭ থেকে ১৮ শতাংশে কমিয়ে এনেছে সরকার’

‌‘ঝরে পরার হার ৪৭ থেকে ১৮ শতাংশে কমিয়ে এনেছে সরকার’
প্যারিসের ইউনেস্কো সদর দপ্তরে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ছবি-ইত্তেফাক

বাংলাদেশ সরকার স্কুল শিক্ষার্থীদের ঝরে পরার হার উল্লেখযোগ্যভাবে কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে। গত ১০ বছরে বাংলাদেশ স্কুল শিক্ষার্থী ঝরে পরার হার ৪৭ শতাংশ থেকে ১৮ শতাংশে কমিয়ে এনেছে ও স্কুল ঝরে পরা রোধে বাংলাদেশ সরকার স্কুল ফিডিং এবং বৃত্তির ব্যবস্থা করেছে বলে জানিয়েছে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

মঙ্গলবার প্যারিসের ইউনেস্কো সদর দপ্তরে ইউনেস্কোর ৪০তম জেনারেল কনফারেন্সের অংশ হিসেবে এসডিজি-এডোকেশন ২০৩০ এর সপ্তম অধিবেশনে তিনি এ তথ্য জানিয়েছেন।

সেশন সভাপতি ইউনেস্কোর এডিজি (stefania giannini) স্টেফানিয়া জিয়ানিনি শিক্ষা ক্ষেত্রে বাংলাদেশের ঈর্ষণীয় সাফল্যের বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রীকে কিছু বলার আহ্বান জানালে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষা ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সাফল্যের কারণে শিক্ষামন্ত্রীকে এসডিজির স্টিয়ারিং কমিটি বিশেষভাবে শিক্ষামন্ত্রীকে বক্তব্য রাখতে আহ্বান জানান। মঙ্গলবার সকালে ইউনেস্কোর ৪০তম জেনারেল কনফারেন্সের জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতারেস ইউনেস্কোর ৪০তম জেনারেল কনফারেন্সের উদ্বোধন করেন।

এ সময় ই নাইন এর প্রতিনিধি হিসেবে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব সোহরাব হোসাইন উপস্থিত ছিলেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত কাজী ইমতিয়াজ হোসেন। বাংলাদেশ ইউনেস্কো জাতীয় কমিশনের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল মোঃ মনজুর হোসেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, 'এসডিজি- চার' সবার জন্য মান সম্মত শিক্ষা অর্জনে সরকার খুব গুরুত্ব দিচ্ছে এবং বাংলাদেশ এ ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য সাফল্য ও অর্জন করেছে। বর্তমানে বাংলাদেশ প্রাইমারি শিক্ষায় এনরোলমেন্টের হার ৯৮ শতাংশ এবং ছেলে শিক্ষার্থীর তুলনায় মেয়ে শিক্ষার্থীর পরিমান বেশি।

এসডিজি অর্জনে বাংলাদেশের কমিটমেপন্টের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী এসডিজি অর্জন সংক্রান্ত কার্যক্রম মনিটরিং করার জন্য একজন সিনিয়র আমলাকে নিয়োগ প্রদান করেছেন।

ইত্তেফাক/আরকেজি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন